শিরোনাম
তাইওয়ানে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে অন্তত ৮০ বার ভূমিকম্প না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা অলিউল হক রুমি তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যে ঝিনাইদহের শতশত নলকূপে উঠছে না পানি ! তাপমাত্রা কমাতে যেসব পরামর্শ দিলেন হিট অফিসার বুশরা মালয়েশিয়ার বুকিত চাবাংয়ে ৪৫ বাংলাদেশি আটক মালয়েশিয়ার বুকিত চাবাংয়ে ৪৫ বাংলাদেশি আটক পছন্দের মানুষকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেতে পাগলা মসজিদের দানবাক্সে চিঠি তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে ছুটি বাড়ানোর দাবি অভিভাবক ঐক্য ফোরামের সাফল্যের ৮ম বর্ষে পূর্ব বড়ুয়া তরুণ সংঘ ভোরে এসে বিজয়ের হাসি হাসলেন মিশা-ডিপজল লালমনিরহাটে গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক পালিত দেশটা আওয়ামী মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে: মির্জা ফখরুল রাজধানীর শিশু হাসপাতালে আগুন ফের একসঙ্গে তাহসান-মিথিলা রাত ১টার মধ্যে ঢাকাসহ যেসব জেলায় ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড় মদিনায় বিনামূল্যে খাবার-পানীয় সরবরাহ করা সেই ইসমাইল মারা গেছেন ইসরায়েলের রকেট হামলায় যেভাবে নির্মম মৃত্যু হলো ৫,০০০ ভ্রূণের  সমালোচনার ঝড়, ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেওয়া হলো ‘রূপান্তর’ ফরিদপুরে দুর্ঘটনা : একই পরিবারে নিহত ৫ জন দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, সাতসকালে সড়কে ঝরল একাধিক প্রাণ
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪০ অপরাহ্ন

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কেউ দায় এড়াতে পারে না : রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : রবিবার, ৩ মার্চ, ২০২৪

রাজধানীর বেইলি রোডে গ্রিন কোজি কটেজে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কেউ দায় এড়াতে পারে না। দায় এড়াতে পারে না ভবন মালিক, রেস্তোরাঁ মালিক কিংবা রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি বা সংশ্লিষ্ট সরকারি দপ্তর কেউ। এমনই মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির মহাসচিব মো. ইমরান হাসান। রবিবার (৩ মার্চ) পুড়ে যাওয়া ভবন পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন তিনি।

ইমরান হাসান বলেন, আমরা এই ঘটনা থেকে দূরে সরে যেতে চাই না। আর এ ধরনের ঘটনা যেন আর না ঘটে, সেজন্য এখনই কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে। সরকারের কাছে আহ্বান জানাব, বাংলাদেশের সব রেস্তোরাঁ মনিটরিং করা আমাদের রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি একার পক্ষে সম্ভব নয়। আমরা সবার সঙ্গে কাজ করতে চাই। সেজন্য আমরা বিভিন্ন দপ্তরে ১ হাজারের বেশি চিঠি দিয়েছি কিন্তু আসলে কোনো সুরাহা আমরা পাইনি। আমাদের কেউ সহযোগিতা করেনি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী এর আগে ফুড সেফটি নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছেন কিন্তু সেই কার্যক্রম এতটাই ক্ষীণ, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আমরা চাই একটা টাস্কফোর্স গঠন করা হোক। আগামী ৩ থেকে ৬ মাসের মধ্যে এই টাস্কফোর্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বাংলাদেশে যত রেস্তোরাঁ আছে তাদের অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা, তাদের সব সেফটি যেন ইনসিওর করা হয়। যারা আমাদের নির্ধারিত নির্দেশনা মেনে চলতে পারবে না, তারা তাদের রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবে। তাদের ব্যবসা করার দরকার নাই।

ইমরান হাসান বলেন, তবে এক্ষেত্রে কোনো রেস্তোরাঁ মালিকের ওপর যেন কোনো জুলুম করা না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। আপনারা জানেন—কোনো ঘটনা ঘটার পর সবাই হইচই শুরু করে। কারণ এই সেক্টরে বিশাল বিনিয়োগ রয়েছে। এখানে ৩০ লাখ শ্রমিক কাজ করছে। রেস্তোরাঁ খাতে ২০ শতাংশ ভোক্তা রয়েছে। এতে জড়িত রয়েছেন যেমন ব্যবসায়ীরা, তেমনি জড়িত রয়েছেন কৃষক। এটি একটি শিল্প, এই শিল্পের সুরক্ষা বাস্তবায়নে সরকারের সহযোগিতা চাই।


এই বিভাগের আরও খবর