শিরোনাম
তাইওয়ানে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে অন্তত ৮০ বার ভূমিকম্প না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা অলিউল হক রুমি তীব্র তাপপ্রবাহের মধ্যে ঝিনাইদহের শতশত নলকূপে উঠছে না পানি ! তাপমাত্রা কমাতে যেসব পরামর্শ দিলেন হিট অফিসার বুশরা মালয়েশিয়ার বুকিত চাবাংয়ে ৪৫ বাংলাদেশি আটক মালয়েশিয়ার বুকিত চাবাংয়ে ৪৫ বাংলাদেশি আটক পছন্দের মানুষকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেতে পাগলা মসজিদের দানবাক্সে চিঠি তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে ছুটি বাড়ানোর দাবি অভিভাবক ঐক্য ফোরামের সাফল্যের ৮ম বর্ষে পূর্ব বড়ুয়া তরুণ সংঘ ভোরে এসে বিজয়ের হাসি হাসলেন মিশা-ডিপজল লালমনিরহাটে গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক পালিত দেশটা আওয়ামী মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে: মির্জা ফখরুল রাজধানীর শিশু হাসপাতালে আগুন ফের একসঙ্গে তাহসান-মিথিলা রাত ১টার মধ্যে ঢাকাসহ যেসব জেলায় ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড় মদিনায় বিনামূল্যে খাবার-পানীয় সরবরাহ করা সেই ইসমাইল মারা গেছেন ইসরায়েলের রকেট হামলায় যেভাবে নির্মম মৃত্যু হলো ৫,০০০ ভ্রূণের  সমালোচনার ঝড়, ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেওয়া হলো ‘রূপান্তর’ ফরিদপুরে দুর্ঘটনা : একই পরিবারে নিহত ৫ জন দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, সাতসকালে সড়কে ঝরল একাধিক প্রাণ
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০১:২৪ অপরাহ্ন

ট্রফি নিয়ে ফটোসেশনে না থাকার ব্যাখ্যা দিলেন তামিম

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

আগামীকাল বিপিএলের ফাইনালে মাঠে নামছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস ও ফরচুন বরিশাল। তার আগে আজ সকালে ট্রফি নিয়ে ফটোসেশন হয়েছে ঢাকার ঐতিহ্য আহসান মঞ্জিলে। যদিও ফটোসেশনে ছিলেন না বরিশালের অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও কুমিল্লার অধিনায়ক লিটন দাস।

বরিশালের প্রতিনিধি হয়ে এসেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

আর কুমিল্লার প্রতিনিধিত্ব করেছেন জাকের আলী অনিক। ফটোসেশনে দুই অধিনায়কের না থাকা নিয়ে আলোচনা যখন তুঙ্গে, তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এর ব্যাখ্যা দিয়েছেন বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

 

তামিম লিখেছেন, ‘বিপিএল ফাইনালের আগে ট্রফি উন্মোচনের আয়োজনের জন্য আজকে চমৎকার একটি জায়গা বেছে নিয়েছিল বিসিবি। তবে আমি সেখানে যেতে পারিনি, এ জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি বিসিবি, বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ও বাংলাদেশ ক্রিকেটের সব অনুসারীর প্রতি।

অধিনায়ক হিসেবে অবশ্যই আমার দায়িত্ব ছিল এ রকম একটি আয়োজনে থাকা।’

 

কারণ হিসেবে তামিম জানিয়েছেন, ‘তবে গতকাল রাতেই আমরা কোয়ালিফায়ার ম্যাচ খেলেছি। ম্যাচ শেষে যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা সেরে হোটেলে ফিরতে আমাদের অনেক রাত হয়ে যায়। এরপর ফাইনালে ওঠার আনন্দ উদযাপনের জন্য দল থেকে বিশেষ আয়োজন ছিল।

পাশাপাশি অধিনায়ক হিসেবে আমার বাড়তি কিছু ব্যস্ততাও ছিল। সব কিছু শেষ করতেই আমার অনেকটা দেরি হয়ে যায়। সকাল সাড়ে ৮টায় হোটেল থেকে বের হওয়া তাই সম্ভব ছিল না আমার পক্ষে। জায়গাটি যেহেতু একটি ঐতিহাসিক স্থাপনা, ট্রফি উন্মোচনের আয়োজনটি নির্দিষ্ট ওই সময়েই করার কিছু বাধ্যবাধকতাও ছিল।’

 

শেষে উপস্থিত থাকতে না পারার জন্য দুঃখ প্রকাশও করেছেন তামিম, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে সব সময়ই বিপিএলকে অনেক মূল্য দিয়েছি এবং এই টুর্নামেন্টকে ওপরে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

কখনোই এই টুর্নামেন্টকে কোনোভাবে খাটো করতে চাইনি। বিপিএলের জন্য কোনো কিছু করার সুযোগ পেলে ভবিষ্যতেও এগিয়ে আসার সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। তবে আজকের পরিস্থিতিতে আমার কোনো উপায় ছিল না এবং এ জন্য আবারও দুঃখ প্রকাশ করছি।


এই বিভাগের আরও খবর