শিরোনাম
আন্দোলনকারীদের দেশে থাকার অধিকার নেই: জাফর ইকবাল স্ত্রীর দাবি নিয়ে স্বামীর বাড়িতে অনশন আগামীকাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা শাবি ছাত্রলীগের কক্ষ থেকে পিস্তল ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়ছে ২৭ শতাংশ, আগস্ট থেকে কার্যকর রাবি প্রশাসনকে সময় বেধে দিলেন আন্দোলনকারীরা রংপুর পার্ক মোড়ের নাম ‌‘শহীদ আবু সাঈদ চত্বর’ দিলেন শিক্ষার্থীরা কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, ৩ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু নওগাঁয় কোঠা সংস্কার মিছিল ছাত্রলীগের বাঁধায় পন্ড, উভয় পক্ষের বাহাস জামালপুরে ট্রেন ও সড়ক অবরোধ কফিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ শিক্ষার্থীদের কোটা সংস্কার : সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল বিশ্ব গণমাধ্যমে কোটা আন্দোলনে নিহতের খবর পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয় কোটা সংস্কার আন্দোলনে সমর্থন জানালেন জি এম কাদের পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয়
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন

রোহিঙ্গাদের ভুয়া জন্মনিবন্ধন বানিয়ে দিতেন তাঁরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

টাকা নিয়ে রোহিঙ্গাদের ভুয়া জন্মনিবন্ধন সনদ বানিয়ে দেওয়া একটি চক্রের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাইবার বিভাগ। একটি জন্মনিবন্ধন সনদ বানিয়ে দিতে চক্রের সদস্যরা ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা নিতেন।

১৩ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জ, বাগেরহাট ও দিনাজপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। আজ সোমবার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন মো. শহিদুল ইসলাম, রাসেল খান, মোস্তাফিজুর রহমান, আবদুর রশিদ ও সোহেল চন্দ্র।

ডিবি জানায়, মেয়র, চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন পরিষদের সচিবদের আইডি ব্যবহার করে হাজার হাজার রোহিঙ্গার ভুয়া জন্মনিবন্ধন বানিয়ে দিয়েছেন এই চক্রের সদস্যরা। এভাবে রোহিঙ্গারা অবৈধভাবে বাংলাদেশের নাগরিক হচ্ছেন।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের সম্পর্কে ডিবি বলছে, গ্রেপ্তার রশিদ দিনাজপুরের বিরল পৌরসভার কম্পিউটার অপারেটর ছিলেন। সোহেল চন্দ্র বিরল পৌরসভার ১০ নম্বর রানীপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের কম্পিউটার অপারেটর ছিলেন। তাঁরা মেয়র, চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের সচিবের জন্মনিবন্ধনের এক্সেস ব্যবহার করে ওই এলাকার বাসিন্দা হিসেবে ভুয়া জন্মনিবন্ধন সনদ দিতেন। একটি জন্মনিবন্ধন সনদ বানিয়ে দিতে চক্রের সদস্যরা ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা নিতেন। গ্রেপ্তার বাকিরা তাঁদের কাছে রোহিঙ্গাদের জন্মনিবন্ধনের চাহিদা জানাতেন। চক্রের সদস্যরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কয়েকটি গ্রুপ খুলে এই প্রতারণা করে আসছিলেন।

ডিবি সাইবার বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার মো.সাইফুর রহমান আজাদ প্রথম আলোকে বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের দুই দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাঁদের কাছ থেকে এই চক্রের আরও কয়েকজনের নাম পাওয়া গেছে। তাঁদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


এই বিভাগের আরও খবর