শিরোনাম
সাংবাদিক রিজুর ওপর হামলার প্রতিবাদে খোকসায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় অটোভ্যানের সঙ্গে হাইজের সংঘর্ষে ভ্যানচালক নিহত সিরাজদীখানে বাস-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ আহত ৩ ফেনীতে বড় ভাইয়ের স্ত্রীর সাথে প’র’কীয়ার সন্দেহে হাতে ছোট ভাই খু’ন শত্রু বেড়েছে শাকিব খানের, নিরাপত্তা চায় ভক্তরা! প্রথম স্ত্রীর চাপে পড়ে মিডিয়ার সামনে নাটক সাজান সেই ইফাত মাকে নিয়ে দেশ ছেড়েছেন হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি, রাতে হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া সিরাজদিখানে কলেজ ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ঝিনাইদহ রেড জোন ঘোষণা রাসেলস ভাইপার সাপের কারণে এই ছাগল আমার লাইফ ধ্বংস করে দিয়েছে বউয়ের মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান কারাগারে মেয়েরা চাকরি শুরু করার পর থেকেই ডিভোর্সের সংখ্যা বেড়েছে’ ভোরে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা, যেভাবে দেখাবেন কোপার ম্যাচ  তিস্তার পানি বিপৎসীমার উপরে, বন্যার আশঙ্কা কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজুর উপর সন্ত্রাসী হামলা যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কে বাস উল্টে আহত ১০ হজ পালন করতে গিয়ে কেউ মা*রা গেলে তার কাফন-দাফনের কী হবে এমপি আনার অপহরণ মামলার আসামী মিন্টুর মুক্তির দাবীতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন চরফ্যাশনে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৪:২৯ অপরাহ্ন

১ হাজার, ৫০০, ২০০ ও ১০০ টাকার জাল নোট উদ্ধার হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : রবিবার, ৯ জুন, ২০২৪
১ হাজার, ৫০০, ২০০ ও ১০০ টাকার জাল নোট উদ্ধার হয়েছে

কদমতলীর দনিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে জাল নোট, জাল নোট তৈরির সরঞ্জামসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

 প্রায় ২৫ বছর ধরে জাল টাকা বানিয়ে বাজারে ছড়িয়ে দিয়েছেন লিয়াকত হোসেন ওরফে জাকির। আগে ৫০০ ও ১ হাজার টাকার নোট জাল করতেন। এখন ১০০, ২০০ টাকার নোটও জাল করেন লিয়াকত। গত এক যুগে ছয়বার গ্রেপ্তার হলেও জামিনে বেরিয়ে এসে আবার একই কাজ শুরু করেন তিনি।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার (অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) মশিউর রহমান  এসব কথা জানান।
রাজধানীর কদমতলীর দনিয়া এলাকায় আজ সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে লিয়াকতসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি। বাসা থেকে সোয়া এক কোটি জাল টাকাসহ জাল টাকা তৈরির বিভিন্ন উপকরণ জব্দ করেছে পুলিশ।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে লিয়াকত স্বীকার করেছেন, তাঁর নেতৃত্বে দনিয়ার বাসায় জাল টাকা তৈরি হচ্ছিল। বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ ১ হাজার, ৫০০, ২০০ ও ১০০ টাকার জাল নোট উদ্ধার হয়েছে।

এক যুগে ছয়বার গ্রেপ্তার লিয়াকত

ডিবির লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার মশিউর রহমানের ভাষ্য, রাজধানীতে জাল টাকা তৈরির অন্যতম কারিগর হচ্ছেন লিয়াকত। দেশব্যাপী তাঁর নেটওয়ার্ক রয়েছে। ১১ বছর আগে প্রথম গ্রেপ্তার হন লিয়াকত। এরপর গ্রেপ্তার হন ২০১৮ সালে। পরে তিনি গ্রেপ্তার হন ২০২০ সালে। এবারসহ ছয়বার গ্রেপ্তার হন তিনি। প্রতিবার তাঁর কাছ থেকে বিপুল অঙ্কের জাল টাকা উদ্ধার করে পুলিশ। জামিনে ছাড়া পাওয়ার পর আবার জাল টাকা তৈরি করতে শুরু করেন লিয়াকত।

মশিউর রহমান বলেন, পুলিশের নজরদারির কারণে ২০২০ সালের পর লিয়াকত ঢাকা থেকে বাগেরহাট ও খুলনায় গিয়ে আত্মগোপন করেন। সেখানে বাসা ভাড়া নিয়ে জাল টাকার কারবার চালিয়ে আসছিলেন। এরপর আবার ঢাকায় ফেরেন তিনি। এর পর থেকে সহযোগী লিমা আক্তারের দনিয়ার বাসায় জাল টাকা তৈরি করে আসছিলেন লিয়াকত। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালিয়ে আজ বিপুল অঙ্কের জাল টাকা উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা মশিউর রহমানের ভাষ্য, জাল টাকা যাঁদের দিয়ে বানান, তাঁদের বেতন দেন দুই লাখ থেকে তিন লাখ টাকা। সহযোগী কেউ গ্রেপ্তার হলে লিয়াকত ওরফে জাকির মাজারে গিয়ে আত্মগোপন করেন। এ জন্য তাঁকে কেউ কেউ ‘মাজার জাকির’ বলে থাকেন। অনেকেই তাঁর কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে জাল টাকার ‘ঘরোয়া কারখানা’ গড়ে তোলেন। তাঁদের কাছে তিনি ‘গুরু জাকির’ বলে পরিচিত।


এই বিভাগের আরও খবর