শিরোনাম
আন্দোলনকারীদের দেশে থাকার অধিকার নেই: জাফর ইকবাল স্ত্রীর দাবি নিয়ে স্বামীর বাড়িতে অনশন আগামীকাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা শাবি ছাত্রলীগের কক্ষ থেকে পিস্তল ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়ছে ২৭ শতাংশ, আগস্ট থেকে কার্যকর রাবি প্রশাসনকে সময় বেধে দিলেন আন্দোলনকারীরা রংপুর পার্ক মোড়ের নাম ‌‘শহীদ আবু সাঈদ চত্বর’ দিলেন শিক্ষার্থীরা কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, ৩ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু নওগাঁয় কোঠা সংস্কার মিছিল ছাত্রলীগের বাঁধায় পন্ড, উভয় পক্ষের বাহাস জামালপুরে ট্রেন ও সড়ক অবরোধ কফিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ শিক্ষার্থীদের কোটা সংস্কার : সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল বিশ্ব গণমাধ্যমে কোটা আন্দোলনে নিহতের খবর পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয় কোটা সংস্কার আন্দোলনে সমর্থন জানালেন জি এম কাদের পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয়
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন

মুশতাক-তিশার পর বইমেলা থেকে বিতাড়িত হলেন হিরো আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
মুশতাক-তিশার পর বইমেলা থেকে বিতাড়িত হলেন হিরো আলম

কনটেন্ট ক্রিয়েটর আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলমকে দুয়োধ্বনি দিয়ে বইমেলা থেকে বিতাড়িত করেছেন মেলায় আসা শতাধিক দর্শনার্থী।

বুধবার বিকাল ৪টার দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশি সহায়তায় মেলা থেকে বের হয়ে যান হিরো আলম। এর আগে বহুল আলোচিত মুশতাক-তিশা দম্পতিকেও বইমেলা থেকে বিতাড়িত করেছিলেন দর্শনার্থীরা।

জানা যায়, নিজের লেখা ‘দৃষ্টিভঙ্গি বদলান, আমরা সমাজকে বদলে দিব’ বইয়ের প্রচার চালাচ্ছিলেন হিরো আলম। হঠাৎ একদল দর্শনার্থী তাকে উদ্দেশ্যে করে ভুয়া ভুয়া, ছিঃ ছিঃ দুয়োধ্বনি দিতে থাকেন। অবস্থা বেগতিক দেখে পুলিশ সদস্যরা নিরাপত্তাবেষ্টনী দিয়ে টিএসসি গেট দিয়ে মেলা প্রাঙ্গণ থেকে হিরো আলমকে বেরিয়ে যেতে সাহায্য করেন।

হিরো আলম এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আমার সঙ্গে কারও কোনো সমস্যা নেই। আমি একটা স্টলে দাঁড়িয়ে ছিলাম। হঠাৎ কিছু ছেলে ভুয়া ভুয়া বলে চিৎকার শুরু করে।

তারা কারা জানতে চাইলে তিনি বলেন, তারা বইমেলার স্টলগুলোরই পোলাপান। এরা চায় না বইমেলায় কোনো সেলিব্রিটি যাক। এ রকম কাজ করে তারা বইমেলা নিয়ে একটা বিতর্ক সৃষ্টি করতে চায়। এদের বিরুদ্ধে একটা ব্যবস্থা নিতে হবে।

এ কনটেন্ট ক্রিয়েটর বলেন, আমি সবার কাছে জানতে চাই— ‘ভুয়া’ শব্দের অর্থ কী? ভুয়া বলার মতো আমি কী করেছি? ভুয়া ভুয়া স্লোগান যারা দেয়, তারা কারা? আর এ ধরনের কর্মকাণ্ড দেখেও পুলিশ কেন নীরব থাকে?

প্রসঙ্গত, বারবার জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিয়ে আলোচনায় আসেন হিরো আলম।


এই বিভাগের আরও খবর