শিরোনাম
সাংবাদিক রিজুর ওপর হামলার প্রতিবাদে খোকসায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় অটোভ্যানের সঙ্গে হাইজের সংঘর্ষে ভ্যানচালক নিহত সিরাজদীখানে বাস-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ আহত ৩ ফেনীতে বড় ভাইয়ের স্ত্রীর সাথে প’র’কীয়ার সন্দেহে হাতে ছোট ভাই খু’ন শত্রু বেড়েছে শাকিব খানের, নিরাপত্তা চায় ভক্তরা! প্রথম স্ত্রীর চাপে পড়ে মিডিয়ার সামনে নাটক সাজান সেই ইফাত মাকে নিয়ে দেশ ছেড়েছেন হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি, রাতে হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়া সিরাজদিখানে কলেজ ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ঝিনাইদহ রেড জোন ঘোষণা রাসেলস ভাইপার সাপের কারণে এই ছাগল আমার লাইফ ধ্বংস করে দিয়েছে বউয়ের মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান কারাগারে মেয়েরা চাকরি শুরু করার পর থেকেই ডিভোর্সের সংখ্যা বেড়েছে’ ভোরে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা, যেভাবে দেখাবেন কোপার ম্যাচ  তিস্তার পানি বিপৎসীমার উপরে, বন্যার আশঙ্কা কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজুর উপর সন্ত্রাসী হামলা যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কে বাস উল্টে আহত ১০ হজ পালন করতে গিয়ে কেউ মা*রা গেলে তার কাফন-দাফনের কী হবে এমপি আনার অপহরণ মামলার আসামী মিন্টুর মুক্তির দাবীতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন চরফ্যাশনে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৪:৫২ অপরাহ্ন

আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দিন দিন কমছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : রবিবার, ২৬ মে, ২০২৪
আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দিন দিন কমছে

সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ ও সাবেক পুলিশপ্রধান বেনজীর আহমেদকে ঘিরে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ ছাড়া সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীমের কলকাতায় খুনের নেপথ্যে চোরাচালানের অভিযোগ এসেছে। এসব ঘটনা নিয়ে কথা বলেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক শাহনাজ হুদা

 

আমাদের দেশে আইনবিরোধী অনেক ধরনের কাজ হচ্ছে। কিন্তু একটা জিনিস মনে রাখতে হবে, অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত দোষী সাব্যস্ত হয় না। কিন্তু সাধারণ মানুষের ক্ষেত্রে আবার আইনের সঠিক প্রয়োগ হতে দেখা যায় না। উচ্চপর্যায়ের লোকেরা অন্যায় করে পার পেয়ে যান।

এ কারণে আইনের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা দিন দিন কমে যাচ্ছে। মানুষ আইন নিজের হাতে নিয়ে নিচ্ছে। এটা দুঃখজনক। আইনের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা বাড়াতে হলে আইনকে তার সঠিক পথে চলতে দিতে হবে। এ বিষয়গুলো পরবর্তী প্রজন্মের জন্য অত্যন্ত চিন্তার ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সরকার যদি বলে, যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, তাদের সুরক্ষা দেবে না, তাহলে আমরাও আশা করতে পারি যে সরকার কাউকে ছাড় দেবে না। যাঁদের ব্যাপারে অভিযোগ এসেছে, তাঁরা তো অবসরে এখন। কিন্তু যাঁরা এখন পদে আছেন, তাঁদের সম্পর্কেও যদি অভিযোগ ওঠে, তখন সরকার যেন কোনোভাবেই প্রভাবিত না করে, সেটাও সবার প্রত্যাশা।

সরকার যদি বলে থাকে সাম্প্রতিক ঘটনাগুলোর দায় তারা নিতে রাজি নয়, তাহলে কি তারা স্বীকার করছে যে ঘটনাগুলো ঘটেছিল? অপরাধ ব্যক্তিই করে থাকে। কিন্তু কার ছত্রচ্ছায়ায় করে, সেটা দেখতে হবে। রাজনৈতিক প্রভাবের মধ্য থেকে যদি তারা করে, অবশ্যই ক্ষমতাসীনদের দায় আছে। তারা এড়িয়ে যেতে পারে না। তাঁরা অবসরে যাওয়ার পরে ঘটনাগুলো সামনে এসেছে। কিন্তু এটা আন্তর্জাতিকভাবে আমাদের ওপর বড় প্রভাব ফেলবে।

অভিযোগ যেটাই আসুক, তার ভালোভাবে তদন্ত করতে হবে এবং সেই তদন্ত যেন স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় হয়। আইন অনুযায়ী, অভিযুক্তদের যে সুবিধা পাওয়া দরকার, তাঁরা সেটা পাবেন। কিন্তু তাঁদের অবসরের যাওয়ার আগেই এগুলো প্রকাশ্যে আসা উচিত। আর সরকারের যে দায়িত্ব, তারা সেটা এড়িয়ে যেতে পারবে বলে মনে হয় না।

  • শাহনাজ হুদা. অধ্যাপক, আইন বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়


এই বিভাগের আরও খবর