শিরোনাম
আন্দোলনকারীদের দেশে থাকার অধিকার নেই: জাফর ইকবাল স্ত্রীর দাবি নিয়ে স্বামীর বাড়িতে অনশন আগামীকাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা শাবি ছাত্রলীগের কক্ষ থেকে পিস্তল ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়ছে ২৭ শতাংশ, আগস্ট থেকে কার্যকর রাবি প্রশাসনকে সময় বেধে দিলেন আন্দোলনকারীরা রংপুর পার্ক মোড়ের নাম ‌‘শহীদ আবু সাঈদ চত্বর’ দিলেন শিক্ষার্থীরা কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, ৩ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু নওগাঁয় কোঠা সংস্কার মিছিল ছাত্রলীগের বাঁধায় পন্ড, উভয় পক্ষের বাহাস জামালপুরে ট্রেন ও সড়ক অবরোধ কফিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ শিক্ষার্থীদের কোটা সংস্কার : সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল বিশ্ব গণমাধ্যমে কোটা আন্দোলনে নিহতের খবর পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয় কোটা সংস্কার আন্দোলনে সমর্থন জানালেন জি এম কাদের পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয়
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

স্কুলের খিচুড়িতে মিলল সাপ

নিজস্ব প্রতিবেদন
আপলোড সময় : বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই, ২০২৪
স্কুলের খিচুড়িতে মিলল সাপ

 

স্কুল থেকে শিক্ষার্থীদের জন্য সরবরাহ করা খিচুড়িতে সাপ পাওয়া গেছে। ভারতের মহারাষ্ট্রের সাংলি জেলার একটি সরকারি নার্সারি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে। ‘মিড-ডে মিলের’ আওতায় মধ্যাহ্নভোজে শিশু শিক্ষার্থীদের ওই খিচুড়ি দেওয়া হয়েছিল।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার (১ জুলাই) এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে বলে এক শিশুর মা-বাবা অভিযোগ করেছেন। তাদের অভিযোগ, সরবরাহ করা খিচুড়ির প্যাকেটে ছোট একটি মরা সাপ ছিল। বিষয়টি জানার পর তারা আতঙ্কিত। তবে রাজ্য অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ইউনিয়নের সহসভাপতি আনন্দী ভোসলে বলেন, সাপের বিষয়টি তারা নিশ্চিত হতে পারেননি। তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আহ্বান জানিয়েছেন।

ভারতে এই প্রকল্পটি অঙ্গনওয়াড়ি নামে পরিচিত। ছয় মাস থেকে তিন বছর বয়সী শিশুরা প্রকল্পের আওতায় মিড-ডে মিলের প্যাকেট পায়। খাবার হিসেবে সাধারণ ডাল খিচুড়ি দেওয়া হয়। সোমবারের ওই খাবার সরবরাহ করা হলেও বুধবার (৩ জুলাই) এক শিশুর মা-বাবা এ অভিযোগ করেন। পরে সংশ্লিষ্ট এক নারী কর্মী ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান।

খবর পেয়ে সাংলি জেলা পরিষদের ডেপুটি চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার সন্দীপ যাদব এবং খাদ্য নিরাপত্তা কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তারা প্যাকেটটি ল্যাব পরীক্ষার জন্য নিয়ে যান। এ বিষয়ে জানতে বারবার চেষ্টা করেও সন্দীপ যাদবের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনি এনডিটিভি।


এই বিভাগের আরও খবর