শিরোনাম
যে কারণে জেল থেকে বের হয়েই স্ত্রীকে হত্যা করল স্বামী  ইরানের হামলার জবাব যেভাবে দিতে পারে ইসরায়েল অস্ট্রেলিয়ায় সমুদ্রে ডুবে মার্কেন্টাইল ব্যাংক কর্মকর্তার মৃ’ত্যু ইরানের হা’ম’লা রুখতে যেসব দেশকে পাশে পেল ইসরায়েল জয় এখন নামাজ পড়া শুরু করেছে : অপু বিশ্বাস কেউ নাক গলালে আরও ভ’য়াবহ হা’ম’লার হুঁশিয়ারি ইরানের ২৪ নয়, ২৬ ঘণ্টায় ১ দিন ঘোষণার দাবি! পায়ুপথে ঢুকে গেল ৬ ইঞ্চি ডাব, এরপর… টিকটক বানাতে ফুফাতো বোনকে নিয়ে নদীতে ঝাঁপ, কিশোরের মৃত্যু ঈদ সালামি নিয়ে তর্ক, স্বামীকে কো’পা’লেন স্ত্রী বাথরুমে মিলল ছাত্রলীগ নেতার ঝুলন্ত ম’র’দেহ  প্রেমে ব্যর্থ হয়ে কিশোরীকে ধ’র্ষ’ণ, তরুণ গ্রেপ্তার ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলায় পুতনিকে ধর্ষণের অভিযোগে দাদাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ উত্তেজনার মধ্যেই ইসরায়েলে অর্ধশতাধিক রকেট হামলা ইসরায়েলকে রক্ষা করতে আমরা অবশ্যই সহযোগিতা করব: বাইডেন ঈদে ‘বিড়ি’ নিয়ে চমক দিলেন জায়েদ খান! জানা গেল ভাইরাল তরুণ-তরুণীর মারধরের কারণ ১০০ বছর পর খুলল মসজিদ, ঈদের নামাজ পড়লেন মুসলিমরা সৌদির সঙ্গে মিল রেখে দেশের বিভিন্ন স্থানে উদযাপিত হচ্ছে ঈদ ঈদের দিন বৃষ্টি না রোদ, কী বলছে আবহাওয়া অধিদপ্তর
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন

একদিনে সাড়ে ২৭ হাজার কোটি টাকা ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৪

তারল্য সংকট মোকাবিলায় বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ধারের মাত্রা বেড়েই চলেছে। চলতি মাসের শুরুতেই সোমবার বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বিশেষ তারল্য সহায়তার আওতায় ধার করেছে ২৫ হাজার ৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। একই দিনে কলমানি মার্কেট থেকে ধার করেছে ২ হাজার ২০০ কোটি টাকা। স্বল্প ও মধ্যমেয়াদি উপকরণের আওতায় আরও ৩০০ কোটি টাকা ধার করেছে এক ব্যাংক অন্য ব্যাংক থেকে। সব মিলে এদিন ব্যাংকগুলো ২৭ হাজার ৫০৬ কোটি টাকা ধার করেছে।

এদিকে মঙ্গলবার ব্যাংকগুলো কলমানি মার্কেট, স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি উপকরণের আওতায় অন্য ব্যাংক থেকে ধার করেছে ৪ হাজার ৬৪৬ কোটি টাকা। এর মধ্যে কলমানি মার্কেট থেকে নিয়েছে ৩ হাজার ৮২৩ কোটি টাকা। বাকি ৮২৩ কোটি টাকা নিয়েছে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি ধারের আওতায়।

সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাংকগুলোতে তারল্যের চাপ বেড়ে গেছে। বিশেষ করে রোজা ও ঈদকে কেন্দ্র করে ব্যাংকগুলোতে নগদ অর্থের চাহিদা বেড়েছে। বাড়তি ব্যয় মেটাতে গ্রাহকরা ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নিচ্ছেন। এছাড়া বৈদেশিক দায় শোধ করতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ডলার কিনতে গিয়ে নগদ টাকা আটকে যাচ্ছে। এছাড়া ব্যাংকগুলো থেকে ঋণ বিতরণ বেড়েছে বেশি, কিন্তু আমানত বেড়েছে কম। বিতরণ করা ঋণ থেকেও অর্থ আদায় হচ্ছে কম। এসব কারণে ব্যাংকগুলোতে তারল্য সংকট বাড়ছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদন থেকে দেখা যায়, ব্যাংকগুলোতে জুলাইয়ে তারল্য ছিল ৪ লাখ ৩৯ হাজার কোটি টাকা। জানুয়ারিতে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ২৪ হাজার কোটি টাকায়। গত ৭ মাসে তারল্য কমেছে ১৫ হাজার কোটি টাকা। এর আগে ব্যাংকগুলোতে তারল্য বাড়ছিল।

এদিকে বুধবার বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বিশেষ তারল্য সহায়তার আওতায় ধার করেছে ২৮ হাজার ৮৬৭ কোটি ১৪ লাখ টাকা। যা একদিনে সর্বোচ্চ ধার হিসাবে চিহ্নিত। কলমানিসহ এদিন মোট ধারের পরিমাণ ছিল ৩২ হাজার কোটি টাকা। এর আগে গত বছরে কেন্দ্রীয় ব্যাংক একদিনে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে সর্বোচ্চ ২৬ হাজার কোটি টাকা ধার নেয়। সোমবার ধার করেছে ২৫ হাজার কোটি টাকা।

ব্যাংকগুলোর দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নিজেদের কাছে মোট তারল্যের একটি অংশ নগদ আকারে থাকার কথা। কিন্তু অনেক ব্যাংকই এটি রাখতে পারছে না। ফলে ব্যাংকগুলো এখন ধার করেই চলছে। কলমানি ও মার্কেট থেকে ধার করা নিয়মিত ব্যাপার হলেও কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ধার ও অন্য বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি ধার স্বাভাবিক ঘটনা নয়। অথচ ব্যাংকগুলো এখন এ ধারের ওপর ভর করেই চলছে।


এই বিভাগের আরও খবর