শিরোনাম
আন্দোলনকারীদের দেশে থাকার অধিকার নেই: জাফর ইকবাল স্ত্রীর দাবি নিয়ে স্বামীর বাড়িতে অনশন আগামীকাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা শাবি ছাত্রলীগের কক্ষ থেকে পিস্তল ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়ছে ২৭ শতাংশ, আগস্ট থেকে কার্যকর রাবি প্রশাসনকে সময় বেধে দিলেন আন্দোলনকারীরা রংপুর পার্ক মোড়ের নাম ‌‘শহীদ আবু সাঈদ চত্বর’ দিলেন শিক্ষার্থীরা কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, ৩ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু নওগাঁয় কোঠা সংস্কার মিছিল ছাত্রলীগের বাঁধায় পন্ড, উভয় পক্ষের বাহাস জামালপুরে ট্রেন ও সড়ক অবরোধ কফিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ শিক্ষার্থীদের কোটা সংস্কার : সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়িতে পবিত্র আশুরার শোক মিছিল বিশ্ব গণমাধ্যমে কোটা আন্দোলনে নিহতের খবর পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয় কোটা সংস্কার আন্দোলনে সমর্থন জানালেন জি এম কাদের পাসপোর্টের রোকনের ঘরে আলাদিনের চেরাগ নারায়ণগঞ্জ পাসপোর্ট অফিসে লাগামহীন ঘুষ বাণিজ্য : রোহিঙ্গা পাসপোর্টও হয়
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন

ঈদের আগে নেত্রকোনায় ২৭ গরুর মৃত্যু, দিশেহারা খামারি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : বুধবার, ১২ জুন, ২০২৪
ঈদের আগে নেত্রকোনায় ২৭ গরুর মৃত্যু, দিশেহারা খামারি

নেত্রকোনার একটি গরুর খামারে গত তিনদিনে ২৭ টি গরুর মৃত্যু হয়েছে। কোরবানির পশুগুলো ঈদের বাজারে নেয়ার আগেই মৃত্যুর কারণে দিশেহারা মালিক। জেলার পূর্বধলা উপজেলা সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়া গ্রামের তাহাযীদ এগ্রো ফার্মে এই ক্ষতির ঘটনাটি ঘটে।

গত রবিবার থেকে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত জাহেরুল ইসলাম নামের খামার মালিকের তিনটি খামারে এই ক্ষতি হয়। আরও পাঁচটি গরু অসুস্থ রয়েছে। খবর পেয়ে নেত্রকোনা প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্তকর্তারা খামার পরিদর্শন করে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠিয়েছেন। এছাড়াও একটি মেডিকেল টিম দিয়েছেন খামারে।

জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় গত শনিবার রাতে গরুকে কাঁচা ঘাস দেয়। পরেরদিন রবিবার থেকে গুরুগুলো অসুস্থ হতে থাকে। এরপর সোমবার পর্যন্ত দিনব্যাপী একে একে ১৩ টি গরু মারা যাওয়ায় আতঙ্কের মধ্যে পড়েন মালিক। চিকিৎসা দিতে দিতে মঙ্গলবার দিনসহ সারা রাতে আরও ১১ টি গুরুর মৃত্য হয়। এরপর বুধবার সকাল পর্যন্ত আরও তিনটি গরু মারা যায়।

 

এ ঘটনায় বুধবার (১২ জন) সকাল থেকে প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তারা গিয়ে হাজির হন ওই খামারে। ছোট বড় বিভিন্ন দামের ২৭ গরুর মৃত্যুতে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এদিকে ঈদের আগে এমন ক্ষতিতে দিশেহারা ফার্ম মালিক। মৃত ২৭ গরুর মধ্যে গাভী দুটি ও বাছুর দুটি। বাকীগুলো সব ষাঁড় ছিলো।

খামারের মালিক জাহেরুল ইসলাম জানান, শনিবার সন্ধ্যায় তার ফার্মের গরুগুলোকে নেপিয়ার কাঁচা সবুজ ঘাস খাওয়ান। এরপর রবিবার থেকে গরুগুলো অসুস্থ হতে থাকে। ধীরে ধীরে অসুস্থ হওয়া গরুগুলো এক এক করে মরতে শুরু করে। খামারে মোট ১০৭ টি বিভিন্ন বয়সের গরু ছিলো। তারমধ্যে ১৪ টিই বিক্রিযোগ্য ষাঁড় গুরু ছিলো। সব মিলিয়ে প্রায় অর্ধকোটি টাকার অধিক ক্ষতি হয়েছে বলে জানান এই ক্ষতিগ্রস্থ খামারি।

এদিকে পরিদর্শনকালে প্রাণিসম্পদের উপ সহকারী গোপাল চন্দ্র সরকার বলেন, নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠিয়েছি। ধারণা করা হচ্ছে বৃষ্টির দিনে কাঁচা ঘাসে নাইট্রোজেনের মাত্রা বেশি থাকার ফলে ঘাসের নাইট্রেট বিষক্রিয়ায় গরুগুলো মারা যেতে পারে। এ ব্যাপারে খামারির সাথে মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করছে এবং খোঁজ খবর রাখছে বলেও নিশ্চিত করেছেন তিনি।


এই বিভাগের আরও খবর