কিশোর অপরাধ এবং করণীয় শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা পরিবার থেকে কিশোরদের শিক্ষা দিতে হবে, সময় দিতে হবে

417

পরিবার থেকে কিশোর ও কিশোরীদের শিক্ষা দিতে হবে। তাদেরকে সময় দিতে হবে। পরিবারের শিক্ষাই বড় শিক্ষা। মনে রাখতে হবে, আজকের কিশোররাই আমাদের আগামী দিনের ভবিষ্যত। ভবিষ্যতে তারাই আমাদের বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তারা যদি বিপদগামী হয়, বিপথে যায়, এর দায় কেউ এড়াতে পারবে না।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে সিদ্ধিরগঞ্জে তাজমহল চাইনিজ রেষ্ট্যুরেন্টে কিশোর অপরাধ এবং আমাদের করণীয় শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন আলোচকরা। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা প্রেস ক্লাবের আয়োজনে উক্ত গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক।

সিদ্ধিরঘঞ্জ থানা প্রেস ক্লাবের সভাপতি হোসেন চিশতী সিপলুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসাইনের সঞ্জালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত গোলটেবিল বৈঠকে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক, জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার জাভেদ ওমর বেলিম, বিশিষ্ট কলামিষ্ট মীর আব্দুল আলিম, নাসিক কাউন্সিলর মাকসুদা মোজাফ্ফর, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও টিভি সাংবাদিক সৌরভ ইমাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা প্রেস ক্লাবের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আহমেদুল কবীর চৌধুরী, আর.কে. চৌধুরী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রভাষক ইকবাল হোসাইন, সদর উপজেলা জামে মসজিদের খতিব মুফতি ফয়জুল্লাহ, তিতুমির বিশ^বিদ্যলয়ের অথীনীতি বিভাগের ছাত্র মেহেদী হাসান সৈকত ও ছাত্র শাফিন আহমেদ।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক বলেন, কিশোর বয়সে কিশোরদের অনেক জানার কৌতুহল থাকে, তাদের অনেক প্রশ্ন থাকে। সেটা আমাদের অভিভাবকদের পাশ কাটিয়ে যাওয়া ঠিক হবে না। আমরা পরিবারের সদস্যরা আমাদের সন্তানরদের সময় দিতে পারছি না। পরিবারকেই সবার আগে হাল ধরতে হবে। মা-বাবা, পরিবার, সমাজ এবং রাষ্ট্র আমাদের যার যার অবস্থান থেকে কিশোরদের মানবিক গুণ সম্পন্ন মানুষ বানাতে হবে। তিনি বলেন, আমরা আমাদের সংস্কৃতি ভূলে যাচ্ছি। ভুলে যাচ্ছি আমাদের ঐতিহ্য। কিশোরদের স্বাধীনতা দিতে হবে। তাদেরকে ইতিবাচক শিক্ষা দিতে হবে, তাদের মতামত জানতে হবে- যার কোন বিকল্প নেই। সন্তানদের জোরপূর্বক কোন কিছু চাপিয়ে দেয়া যাবে না। সন্তানদের মানবিক করে গড়ে তুলতে হবে।
ক্রিকেটার জাবেদ ওমর বেলিম বলেন, কিশোরদের জন্য আমাদের অনেক কিছু করার রয়েছে। সেই করণীয়গুলো আমাদের মানতে হবে। আমাদের অনেক সামাজিক কাজ করার আছে। সব যদি সরকার ও প্রশাসনই করে, তাহলে আমরা কী করবো? আমাদের দায়িত্ব নিতে হবে। কিশোরদেরকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুমিকা রাখতে হবে অবশ্যই খারাপ দিকগুলোকে বর্জন করে।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক বলেন, কিশোর অপারাধের সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে ধর্মীয় মূল্যবোধের অভাব। তাছাড়া বিদেশি টেলিভিশন চ্যানেলের বিভিন্ন সিরিয়ালও এর জন্য অনেকাংশে দায়ী। মাদক ও আধিপত্ব বিস্তার সহ নানা কারণে কিশোর অপরাধ দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ সমস্যা পরিত্রাণের জন্য অভিভাবকদের সচেতনতা প্রয়োজন। সন্তানদের নিয়মিত খোঁজ-খবর রাখতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
মীর আব্দুল আলীম বলেন, উন্নত বিশ্বের কিশোরেরা সারাক্ষণ অনলাইন নিয়ে ব্যস্ত থাকে। যা থেকে তারা ভালো দিকগুলো গ্রহণ করে সফলতা অর্জনে এগিয়ে যাচ্ছে। আমাদের সন্তানদেরও ভালো দিকগুলো গ্রহণ করা উচিৎ। সেজন্য পারিবারিক সচেতনতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
নাসিক কাউন্সিলর মাকসুদা মোজাফ্ফর বলেন, বাচ্চাদের সাথে আমাদের বন্ধুসূলভ আচরণ করতে হবে। তাদের প্রতি যতœশীল হতে হবে। কোন বিষয়েই তাদেরকে অবহেলা করা যাবেনা।
সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৌরভ ইমাম বলেন, আধিপত্ত¡ বিস্তার নিয়ে কিশোর খুনের মত ঘটনাও ঘটছে। পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রকে দায়িত্ব নিতে হবে এই অপরাধ দমনে। যৌথভাবে চেষ্টা করলে অবশ্যই আমাদের কিশোরদের সুপথে আনা সম্ভব।
ইরশাদুল উম্মাহ মাদ্রাসার মোহতামিম হাফেজ মাওলানা মনিরুজ্জামান সোহেলের কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক মোস্তফা কামাল নয়ন, শাহাদাত হোসেন স্বপন, আসাদুজ্জামান নূর, বিশাল আহমেদ, মোঃ আরিফ হোসেন, কামরুল হাসান ও ইমন প্রমুখ।